এসইও ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল : পর্ব-২, এসইও এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা।

আশাকরি সকলে অনেক ভালো আছেন। এসইও এর ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল এর ২য় পর্ব এটি। এর আগে আমরা প্রথম পর্বে ওয়েবসাইট ও সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে সাধারণ আলোচনা করেছিলাম। ধরে নিলাম আপনারা সবাই ১ম পর্ব টি দেখেছেন এবং পরিষ্কার ভাবে বুঝতে পেরেছেন। আর যারা দেখেন টি তারা এখান থেকে দেখে নিন:

এসইও ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল : পর্ব-১, ওয়েবসাইট ও সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে সাধারণ আলোচনা।

এই পর্বে আমরা এসইও এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করব। তো চলুন শুরু করা যাক:
মনে করুন আপনার একটা ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট বা ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং বিষয়ে এবং আপনার সাইটে যথেষ্ট পরিমাণে ভালো কন্টেন্ট বা আর্টিকেল আছে এখন আপনি চাচ্ছেন যে, প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আপনার সাইটে আসুক এবং আপনি সেই সুবাদে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দাতার কাছ থেকে বিজ্ঞাপন নিয়ে আপনার সাইটে এড করবেন যেমন গুগল এডসেন্স এবং সেখান থেকে ভালো মানের একটা ইনকাম করবেন বা টাকা আয় করবেন। এখন ভেবে দেখুন আপনার সাইটে শুধু ভালো কন্টেন্ট থাকলেই হচ্ছে না ইনকাম করার জন্য প্রচুর ভিজিটর দরকার। এখন আপনি ভিজিটর কোথায় পাবেন? আপনি তো আর লোকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে আপনার সাইটে ভিজিট করার জন্য আমন্ত্রণ জানাতে পারবেন না কারণ সেটা সম্ভব না। আপনি কত জনের বাড়ি যাবেন? আর যদি লোকের বাড়ি বাড়ি যেতে আপনি রাজীও থাকেন তাহলে ভেবে দেখুন আপনি যাদের বাড়ি যাবেন তাদের সবারই কি আপনার ওয়েবসাইটের বিষয় মানে ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং বিষয়ে জানার দরকার? না সবার দরকার কখনো হবে না। তাই বলছি এটা কখনো সম্ভব নয়।
এবার আসুন অন্য ধান্দা করি: মনে করুন আপনার সাইট টা ইংরেজিতে করা তাহলে বোঝা যাচ্ছে যে, পৃথিবীর সকল লোক (যারা ইংরেজী বোঝে) এটাকে পড়তে পারবে তাহলে আপনার টার্গেট ভিজিটর হল পৃথিবীর যে সকল লোক ইংরেজী পড়তে ও বুঝতে পারে এবং ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং দরকার। এখান থেকে আপনার টার্গেট ভিজিটর কারা সেটা মনে রাখুন: ‘আপনার টার্গেট ভিজিটর হল পৃথিবীর যে সকল লোক ইংরেজী পড়তে ও বুঝতে পারে এবং ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং দরকার।‘
এখন দেখুন আপনার টার্গেট ভিজিটরদের ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং দরকার এখন তাদের দরকার মাথায় নিয়ে কি তারা বসে থাকবে? নিশ্চই বসে থাকবে না। তারা অবস্যই খোজা খুজি করবে। তারা সেখানে খুজবে যেখানে পাওয়া যায় আর আপনার কাজ হল তারা যেখানে খুজবে সেকানে আপনার সাইটের কন্টেন্ট গুলো পৌছে দেওয়া। তাহলে আপনার কাজ কি কমে গেল না? হ্যা অবশ্যই কমে গেল। এখন কথা হল আপনার টার্গেট ভিজিটর রা আপনার সাইটের কন্টেন্ট রিলেটেড টপিক কোথায় খোজে? হ্যা সেটা হল সার্চ ইঞ্জিন যেমন: গুগল.কম। আপনার সাইটের কন্টেন্ট গুলো গুগলের মত সার্চ ইঞ্জিনের কাছে জমা দিতে হবে তাহলে আপনার টার্গেট ভিজিটররা যখন আপনার কন্টেন্ট রিলেটেড আর্টিকেল সার্চ ইঞ্জিনে খুজবে তখন সার্চ ইঞ্জিন তাকে সরাসরি আপনার আর্টিকেল দেখিয়ে দিবে বা লিংক দিবে তখন সেই লিংক ধরে আপনার সাইটে ভিজিটর আসবে। কত সহজে বলে ফেললাম তাই না? হ্যা বিষয়টা এই রকম কিন্তু অত সহজ না। এখন আসুন উপরের সুত্র ধরে একটু গভিরে যাওয়া যাক:
প্রথমে বুঝুন আপনি সার্চ ইঞ্জিন কে বললেন আপনার সাইট জমা নিতে আর সাথে সাথে আপনার সাইট জমা নিয়ে নিবে? না নিবে না। তার জন্য আপনাকে অনেক গুলো নিয়ম মানতে হবে যে নিয়ম গুলো সার্চ ইঞ্জিন দিয়ে থাকে। কিছু নিয়ম মেনে আপনার সাইট তৈরী করা থাকতে হবে কিছু নিয়ম-নীতি আপনার কন্টেন্টের ভিতরে থাকতে হবে তাহলে আপনার সাইটকে সার্চ ইঞ্জিন নিতে পারে আর নিতে পারে মানে সব ধরে নিয়ে নিল তা না। আপনার সাইটের লিংক গুলো তার কাছে জমা রাখতে পারে আর এটাকে বলা হয় ইনডেক্স। আপনার সাইট যদি সার্চ ইঞ্জিনের কাছে ইনডেক্স করা না থাকে তাহলে একজন ভিজিটর আপনার টপিক রিলেটেড বা সরাসরি আপনার টপিক সারাদিন সার্চ ইঞ্জিনে খুজলেও আপনার সাইট পাবে না। মোট কথা হল সার্চ ইঞ্জিন এর নিয়ম-কানুন মেনে আপনার সাইট শুরু করা থেকে কন্টেন্ট লেখা সহ সার্চ ইঞ্জিনের দ্বারা ইনডেক্স হয়ে সাধারণ টার্গেট ভিজিটরের কাছে পৌছাতে আপনাকে যা যা করতে হবে সবগুলো মিলেই হল সার্চইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা সংক্ষেপে এসইও
এই নিয়মগুলো মানা বা সার্চইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কেন এত গুরুত্বপূর্ণ জানেন? আমি বলছি, আপনার যেমন একটা সাইট আছে ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং নিয়ে অনলাইনে তেমন হাজার হাজার সাইট আছে এই টপিকের উপর তারাও এসইও করে সার্চ ইঞ্জিন কে তাদের সাইট জমা দিয়েছে। তাহলে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে যখন একজন ভিজিটর আপনার রিলেটেড টপিক চাইবে তখন সার্চ ইঞ্জিন কি আপনার টা দেখাবে না অন্য জনের টা দেখাবে? নিশ্চই সেই সাইট টা দেখাবে যে সাইটটা সঠিক ভাবে অপটিমাইজেশন করা বা এসইও করা। যদি আপনার সাইট সঠিক ভাবে এসইও করা থাকে তাহলে আপনার সাইট টা দেখাবে। বাকী গুলো এসইও এর মানের ভিত্তিতে সিরিয়ালে দেখাবে।
তাহলে বুঝুন যে, এসইও এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা কত টুকু।

Add a Comment