TFads.
  • TFads.
  • সাম্প্রতিক পোষ্ট:

       যখন আপনার বয়স 60 তখন আপনাকে কেমন দেখাবে?? দেখে নিন face changer app দিয়ে    হার্ডডিস্ক কি? কেনার আগে জানুন বিস্তারিত    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-৭। HTML কমেন্ট ও লাইন ব্রেক।    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-৬। ইমেজ, লিংক এবং এট্রিবিউট।    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-৫। HTML এলিমেন্ট সম্পর্কে আলোচনা।    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-৪। প্রথম HTML ফাইল তৈরী ও ব্রাউজারে প্রদর্শন।    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-৩। HTML পেজ এর মূল গঠন।    ধারাবাহিক HTML টিউটোরিয়াল পর্ব-২। প্রয়োজনীয় উপকরণ ডাউনলোড ও ইন্সটল।    চলুন শুরু করি HTML এর ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল।    ওয়ার্ডপ্রেস থিম কাস্টমাইজেশন পর্ব-৩৮, আপনার ব্লগ থেকে পোষ্ট চুরি বন্ধ করুন মাত্র একটা কোডের মাধ্যমে।

    যোগদান: ফেব্রুয়ারী ২২, ২০১৯
    1.টি পোষ্ট,   0.টি মন্তব্য

    This author may not interested to share anything with others This author may not interested to share anything with others This author may not interested to share anything with others

       আমার কোন ওয়েব সাইট নাই।
       আমার কোন টুইটার প্রোফাইল নাই।
       আমার কোন গুগল প্লাস প্রোফাইল নাই।
       আমার কোন ফেসবুক প্রোফাইল নাই।
       আমার কোন লিংকডইন প্রোফাইল নাই।

    হার্ডডিস্ক কি? কেনার আগে জানুন বিস্তারিত

    » »৩১ মার্চ, ২০১৯ »১ টি মন্তব্য » » ইলেক্ট্রনিক্স , বিজ্ঞান »105 বার দেখা

    হার্ডডিস্ক কেনার আগে জেনে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

    এক্সটার্নাল বা পোর্টেবল হার্ডডিস্ক(Hard Disk) মূলত তখনই ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়, যখন পিসির হার্ড ডিস্ক পূর্ণ হওয়ার পরও অতি প্রয়োজনীয় বিশেষ কিছু ডাটা আলাদাভাবে ব্যাকআপের দরকার হয়। এমন এক সময় ছিল যখন ৪জিবি অথবা ৮ জিবি স্টোরেজে ব্যবহারকারী খুব সহজেই সমাধান খুঁজে পেতেন। কিন্তু সময় ও কাজের ধরণে পরিবর্তনের সাথে তাল মিলিয়ে এক্সটার্নাল হার্ড ডিস্ক এখন গ্রাহকদের বিশেষ চাহিদার একটি অংশ হিসেবে পরিগণিত হয়েছে।

    এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক কি?

    সাধারণ হার্ড ড্রাইভ এর মতই এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক, যেটি পোর্টেবল হার্ড ড্রাইভ হিসেবে গ্রাহক যে কোন স্থানে বসে ব্যবহার করতে পারেন। কম্পিউটিং সেক্টরে সাধারণত দুই ধরণের এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের জনপ্রিয়তা দেখা যায় – এইচডিডি ও এসএসডি যা সলিড স্টেড ড্রাইভ নামেও সমধিক পরিচিত। পার্থক্য হচ্ছে পোর্টেবল হার্ড ড্রাইভে ডাটা ক্যাবল দিয়েই প্রয়োজনীয় পাওয়ার সাপ্লাই করা যায়, তাই আলাদা করে অন্য পাওয়ার সাপ্লাই এর ঝামেলা থাকে না। তবে এনক্লোসারের মাধ্যমে এটিকে আপনি ইন্টারনাল হার্ড ড্রাইভ হিসেবেও ব্যবহার করতে পারবেন। এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের জন্য এখন ইউএসবি ২.০ বা ৩.০ অথবা টাইপ সি কানেক্টর ক্যাবল পাওয়া যায়, এরপরও চাইলে সাটা এবং ফায়ারওয়্যার অথবা ওয়্যারলেস কেবলের সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

    এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক কেন ব্যবহার করবেন?

    দৈনন্দিন জীবনে আমাদের ব্যক্তিগত কম্পিউটারে কাজের ক্ষেত্রে বা কাজের বাইরে বিভিন্ন ডাটা, ফাইল ও ছবি স্টোর করে রাখি। পিসি অথবা হার্ড ডিস্ক ক্র্যাশ করে সেসব ডাটা হারিয়ে যাক, এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনার স্বীকার আপনি নিশ্চয়ই হতে চাইবেন না। কাজেই জরুরী এসব ডাটা ব্যাকআপের ক্ষেত্রে এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের ব্যবহার হতে পারে আপনার জন্য অন্যতম স্বস্তির কারন। মুভি, মিউজিক বা বড় কোন ডাটা বহনে অথবা সংরক্ষণের ক্ষেত্রে একটি পোর্টেবল হার্ড ড্রাইভ আপনার জন্য নিরাপদ ভূমিকা পালন করতে পারে। আর ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের জন্য তো এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ ব্যবহার আরও সহজসাধ্য একটি ব্যাপার। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় সুবিধা হল এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের সাহায্যে একটি নেটওয়ার্ক স্টোরেজ ডিভাইসের সমন্বয় ঘটিয়ে যেকোন লোকাল নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত ডিভাইস ও ড্রাইভ এর অ্যাক্সেস পাওয়া সম্ভবপর হবে।

    পোর্টেবল হার্ডডিস্ক কেনার আগে করণীয় বিষয় সমূহ

    ডাটা স্পিড

    ডাটা স্টোরেজে ভাল অভিজ্ঞতা পেতে ভাল মানের হার্ড ডিস্ক যেমন জরুরী, এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের ডাটা স্পিডও অন্যতম একটি মূখ্য বিষয়। আপনি হয়ত সাটা ক্যাবল অথবা ইউএসবি ৩.০ ও সি-টাইপ ক্যাবলের সাহায্যে দ্রুত গতির নিশ্চয়তা কিছুটা হলেও নিশ্চিত করতে পারবেন। কিন্তু ডাটা আদান-প্রদানের স্পিড হার্ড ড্রাইভের উপরও অনেকাংশে নির্ভর করে। বিশেষ করে আরপিএম (RPM) এক্ষেত্রে বিশেষ ভুমিকা পালন করে থাকে। উল্লেখ্য, আরপিএম যত বেশি, ডাটা স্পিড ততই বেশি।

    নেটওয়ার্ক সিস্টেম

    ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক সিস্টেমে একসাথে বেশি ডাটা স্টোর করতে চাইলে নেটওয়ার্ক অ্যাটাচ স্টোরেজ (NAS) অথবা রেইড (RAID) আপনার জন্য সহজ সমাধান হতে পারে। রেইড সিস্টেমের সুবিধা হচ্ছে একসাথে একাধিক ড্রাইভ ব্যবহার করা সম্ভব।

    সাইজ

    আপনার ডাটা ব্যাকআপের চাহিদার উপরই হার্ড ড্রাইভের সাইজ নির্ভর করছে। ২৫০ জিবি থেকে ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বিভিন্ন সাইজের হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ অনলাইনে পাবেন। বড় ফাইল স্টোরেজের ক্ষেত্রে একটু বেশি স্পেস আপনাকে দিতে পারে বাড়তি সুবিধা।

    ধরণ

    এইচএসডি ও এসএসডি দুই ধরণের হার্ড ডিস্কই আপনার প্রয়োজনীয় স্টোরেজ চাহিদা বেশ ভাল ভাবেই পুষিয়ে দিতে সক্ষম। তবে বড় ফাইল ও ডাটার সবচেয়ে দ্রুতগামী অ্যাক্সেস পেতে আপনি সলিড স্টেট ড্রাইভের উপর বাজি ধরতেই পারেন। কম দামে বিশাল ধারণক্ষমতা ও আল্ট্রা ফাস্ট স্পিডের এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের স্বাদ পেতে তাই এসএসডিতে নজর রাখতে পারেন।

    দেশের লোকাল মার্কেটপ্লেসের পাশাপাশি অনলাইন শপগুলোতেও বর্তমানে অ্যাডাটা, ট্রান্সসেন্ড, স্যামসাং, তোশিবা ও অ্যাপাসার সহ অন্যান্য জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ পাওয়া যাচ্ছে।

    কেনার আগে যেসব বিষয় যাচাই করে নিতে পারেন

    • ডাটা সুরক্ষার ব্যবস্থা প্রণালী
    • পানি নিরোধক কিনা, সে বিষয়ে খেয়াল রাখা
    • গ্যারান্টি বা ওয়ারেন্টির মেয়াদ
    • প্রয়োজনীয় পাওয়ার সাপ্লাই ক্যাবল এবং সব শেষে
    • পিসির ইউএসবি পোর্টের সাথে ড্রাইভটি সামঞ্জস্যপূর্ণ কি না, তা খতিয়ে দেখা।

    আপনার অফিস ও বাসার মূল্যবান সকল তথ্য ও ডাটার ব্যাকআপ থাকুক এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভের মাধ্যমেই। পোর্টেবল হার্ডডিস্ক সম্পর্কে ভালভাবে জেনে তবেই সিদ্ধান্ত নিন আপনার জন্য কেমন হার্ডডিস্ক লাগবে।

    প্রিয়তে যুক্ত করুন: 12

    ১ টিমন্তব্য “ হার্ডডিস্ক কি? কেনার আগে জানুন বিস্তারিত ”

    1. এত সুন্দর পোষ্টটি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া। আশা করি নিয়মিত আপনার পোষ্ট পাবো।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য করতে হলে আপনাকে প্রবেশ করতে হবে.